Skip to content

মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারের সুবিধাসমূহ

মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারের সুবিধাসমূহ

 

মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে শিক্ষার্থীরা নিম্নোক্ত সুবিধাগুলিসহ নানাধরণের সুযোগ পাবে।

১. নিজের পছন্দমত কোন পরীক্ষা নিরীক্ষা করার সুযোগ, যেখানে একজন শিক্ষার্থী পছন্দমত কোন একটি পরীক্ষণের পরিকল্পনা করে নিয়ে আসবে এবং সেটি করে বিজ্ঞানের কোন একটি বিষয় হাতে-কলমে বুঝবে। এক্ষেত্রে সে বিজ্ঞানাগারের বিভিন্ন সুবিধাদি ব্যবহারের সুযোগ পাবে।

২. স্কুলের সিলেবাস ভিত্তিক একটি কার্যক্রম থাকবে, যেখানে নির্দিষ্ট সময় ধরে নির্দিষ্ট কতগুলো পরীক্ষণ করানো হবে। এই কার্যক্রমটি সাধারণ শিক্ষা ব্যবস্থার বইয়ের সিলেবাস ধরেই হবে। যেসকল স্কুলে শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞানাগারে হাতে-কলমে পরীক্ষা-নিরীক্ষার সুযোগ পায় না তারা এই কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবে।

৩. প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আমাদের দেশে কখনও বিজ্ঞানাগারে যাওয়ার সুযোগ পায় না, এমনকি কিচেন সায়েন্স এক্সপেরিমেন্টও তেমন জনপ্রিয় নয়। মাকসুদুল আলম ল্যাবে তাই থাকবে কিচেন এক্সপেরিমেন্ট সেকশন, যেখানে প্রাথমিক শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সুযোগ পাবে বিজ্ঞানের নানা মজার বিষয় হাতে-কলমে জানতে, যেগুলো তারা বাসায় আবার নিজেরাও করতে পারবে।

৪. মাকসুদুল আলম ল্যাবের থাকবে নিজস্ব সার্টিফিকেট কোর্স। কোর্স হবে দুই ধাপে।

ক. বিগিনার্স

বিগিনার্স কোর্স হবে এক মাসব্যাপী মোট ৮ দিনের।  প্রতিদিন তিন ঘন্টা করে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক্স-রোবোটিক্স এর জন্য আলাদা আলাদা দুই দিন করে প্রাথমিক বিষয়গুলো শেখানো হবে। বিগিনার্স কোর্সে সবগুলো বিষয়ের মৌলিক ধারণা নেওয়ার পর একজন শিক্ষার্থী চাইলে এডভান্সড কোর্স শুরু করতে পারবে।

খ. এডভান্সড

এডভান্সড কোর্স হবে বিগিনার্স কোর্স করা শিক্ষার্থীদের জন্য। এডভান্সড কোর্সে চারটি ভাগ থাকবে। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান ও রোবোটিক্স-ইলেক্ট্রনিক্সের প্রতিটি বিষয়ের জন্য আলাদা কোর্স থাকবে। শিক্ষার্থীরা পছন্দমত যে কোন কোর্স করতে পারবে। প্রতিটি কোর্স হবে ১০-১২ টি ক্লাসের। তত্ত্বীয় এবং ব্যবহারিক দুই অংশ মিলিয়ে প্রতিটি ক্লাস হবে তিন ঘন্টার।

৫. শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান প্রকল্প বানানোর জন্য প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে দেওয়া হবে। যেমন যে কোন বৈজ্ঞানিক এক্সপেরিমেন্ট করা, মেন্টরিং বা প্রয়োজনীয় পরামর্শ, অডিও-ভিজ্যুয়াল প্রেজেন্টেশন বানাতে প্রয়োজনীয় সাপোর্ট ইত্যাদি।

৬. বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিয়াড ও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে বিভিন্ন ক্যাম্পের আয়োজন করা হবে। যেমন বাংলাদেশ আইজেএসও দলের প্রস্তুতির বড় একটি অংশ সম্পন্ন হবে মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে।

৮. মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে স্কুল শিক্ষার্থীদের উপযোগী ও প্রয়োজনীয় বিজ্ঞানের বই সমৃদ্ধ একটি বিজ্ঞান লাইব্রেরি থাকবে।