গুগল সায়েন্স ফেয়ার পরিচিতি কর্মশালা ২০১৭

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে যাদের আগ্রহ রয়েছে, তাদের প্রতিভা এবং মেধার স্বাক্ষরকে বিশ্ববাসীর কাছে পৌঁছে দিতে টেক জায়ান্ট গুগল ২০১১ সাল থেকে আয়োজন করছে গুগল সায়েন্স ফেয়ার। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারে সারা বিশ্বের শিক্ষার্থীরা। পূর্বের আয়োজনগুলোতে অংশ নিয়েছে প্রায় ৯০ টি দেশের শিক্ষার্থী। ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী প্রতিযোগীরা এই আয়োজনে অংশ নেয়। পূর্বের গুগল সায়েন্স ফেয়ারে ইবোলার মতো ভয়ংকর রোগ সহজে এবং দ্রুত নির্ণয় করার উপায় থেকে পেলশিয়ার ক্রিয়া ব্যবহার করে ব্যাটারি ছাড়া ফ্ল্যাশ লাইট বানানোর মতো প্রকল্প পুরস্কার পেয়েছে। উল্লেখ্য, গতবছর বাংলাদেশ থেকে এশিয়া প্যাসিফিক রিজিওনাল পটেনশিয়াল ফাইনালিস্ট হয়ে সালিহা মেহনাজ গুগলের হেডকোয়ার্টারে অনুষ্ঠিত মূল পর্বে অংশ নেয়।

কর্মশালায় অংশ নিতে সারাদেশ থেকে প্রায় ৩২০ শিক্ষার্থী নিবন্ধন করে। নিবন্ধনের সময় তাদের প্রকল্পের আইডিয়া জমা দিতে হয়। সেখান থেকে ৫০ জনকে কর্মশালায় অংশ নিতে বাছাই করা হয়। অংশগ্রহণকারীরা খুলনা, কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইল, গাজিপুর ও ঢাকার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী। কর্মশালায় গুগল সায়েন্স ফেয়ারের পরিচিতি, অংশগ্রহণের নিয়মকানুন, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অনুসরণ করে প্রকল্প তৈরী, বিগত বছরের পুরষ্কারপ্রাপ্ত কয়েকটি প্রকল্প নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় অন্যান্য বিষয় নিয়েও ধারণা দেওয়া হয়।

কর্মশালার বিভিন্ন সেশন পরিচালনা করেন এসপিএসবির একাডেমিক সদস্য হাসান নাহিয়ান নোবেল, সায়িফ রহমান আবির, দিব্য কান্তি দত্ত প্রমুখ। পুরো আয়োজনটি সমন্বয় করেন শফিকুল ইসলাম।

Comments

comments

This entry was posted in . Bookmark the permalink.