রসায়নের সাম্প্রতিক গবেষণা

বর্তমানে এতো গবেষণা পরিচালিত হচ্ছে যে, প্রতিদিন-ই নতুন কিছু আবিষ্কার হচ্ছে। রসায়নের সাম্প্রতিক গবেষণার মধ্যে খুবই কার্যকরী কিছু বিষয় আছে:


১. বাতাস থেকে পানি উৎপাদন : Omar Yaghi, ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন রসায়নবিদ, Metal Organic Framework, বা MOFs নামে পরিচিত একটি জাতীয় স্ফটিক পাউডার তৈরি করেন, প্রায় ২০ বছর আগে। MOF হচ্ছে ধাতব পরমাণু দিয়ে তৈরি ছিদ্রযুক্ত কেলাস। এখানে ধাতব পরমাণুগুলো একটা আরেকটার সাথে যুক্ত থাকে লাঠি আকৃতির জৈব যৌগের সাহায্যে। এসব যৌগ, গ্যাস বা তরল শোষণের ক্ষমতা রাখে। যৌগগুলো কি শোষণ করবে, আর কতটুকু শোষণ করতে পারবে তা তাদের গঠনের উপর নির্ভর করে।

২০১৪ সালে Yaghi এমন একটি MOF তৈরি করতে সফল হন যা পানি শোষণ ক্ষমতাকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যায়। তখন তিনি ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (MIT) এর Evelyn Wang এর সাথে এমন একটি যন্ত্র গড়ে তুলার সিদ্ধান্ত নেন, যা বাতাস থেকে জলীয় বাষ্প শোষণ করতে পারে এবং তরল জল হিসেবে তা উৎপাদন করতে পারে।

রাতের বেলা, যন্ত্রে  বাতাস ঢুকলে, MOF গুলো বাতাস থেকে জলীয় বাষ্প শোষণ করে নেয়। দিনের বেলা সূর্যের তাপে এই জল অণু MOF থেকে মুক্ত হয়ে তরল জল হিসাবে বের হয়ে আসে। তাপমাত্রার পার্থক্য এবং চেম্বারের ভিতরে উচ্চ আর্দ্রতার কারনে এই অনুগুলো বের হয়ে আসে।

প্রত্যেক কিলোগ্রাম MOF খুব কম আর্দ্রতার জায়গায় ও 2.8 লিটার পানি তৈরি করতে পারে। য জিরকোনিয়াম এর পরিবর্তে একটি সস্তা ধাতু পরমাণু ব্যবহার করার উপায় বের করার চেষ্টা চলছে, যাতে জনসাধারণের কাছে আরও সহজল্ভ্য হয়ে উঠে এই যন্ত্রের ব্যাবহার। শুধু ভেবে দেখেন, বিশুদ্ধ পানির অভাবে যারা ভুগছে তাদের জীবন কত সহজ-ই না হয়ে যেতে পারে এই যন্ত্রের সাহায্যে।

 

২. কেভলার স্যুট তৈরিতে ন্যানোটিউবের ব্যাবহার : “Body Armour” এ কেভলারের ব্যাবহার সবারই জানা। কিন্তু এর অন্যতম একটি ক্ষুত হচ্ছে, যদিও তা বুলেট বা অন্য যেকোনো অস্ত্রাঘাত থেকে এর পরিধানকারী কে রক্ষা করতে পারে, এর অস্ত্রের আঘাতের শক্তি পুরোপুরি সঞ্চারিত হয় পরিধানকারীর শরীরে।

চীন এর বিজ্ঞ্যানীরা সুদৃঢ় প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন “স্মার্ট কেভলার স্যুট” তৈরির। এই স্যুটে ব্যাবহার করা হবে কার্বন ন্যানোটিউব, যা একে আরও মজবুত করবে। কাপড়ের ভেতরের উপাদানে ন্যানোটিউবগুলো একটি পরিবাহী  নেটওয়ার্ক গঠন করে। টিউবগুলোর উচ্চ বল সংবেদনশীল ক্ষমতা এর উপাদানকে একটি বাড়তি লেয়ারের মত সাহায্য করে আঘাত থেকে রক্ষা করতে। বর্তমান বাজারের কেভলার স্যুটের তুলনায়, এই স্যুট এর বুলেট রোধক ক্ষমতা ৯০% এবং ছুড়িকাঘাত রোধ ক্ষমতা ৫০% বেশি। আশা করা যায় এধরনের পুরোপুরি কার্যকর স্যুট আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর  জীবন রক্ষার সুনিশ্চয়তা দান করবে।

 

৩. কন্ট্যাক্ট লেন্সের উপর গ্রাফিন কোটিং : যদি বলি যে আপনার কনট্যাক্ট লেন্স আপনার চোখকে ক্ষতিকর তড়িৎচুম্বকীয় তরঙ্গ থেকে রক্ষা করতে পারে, অথবা চোখের অনার্দ্রতা থেকে বিরত রাখতে পারে?  ঠিক তাই করে গ্রাফিন আবরিত “স্মার্ট” কনট্যাক্ট লেন্স। গ্রাফিন একটি পাতলা কার্বন উপাদান যার চমৎকার বৈদ্যুতিক বৈশিষ্ট্য আছে। এছাড়াও তা দারুন জৈব উপযুক্ততা প্রদর্শন করে।

ক্ষতিকর রশ্মি থেকে চোখকে রক্ষা করার গুণ টি পরীক্ষা করা হয় ডিমের সাদা অংশের উপর গ্রাফিনের একটি লেয়ার দিয়ে। এতে দেখা গেছে যে তড়িৎচুম্বকীয় তরঙ্গের প্রভাব গ্রাফিন আবরন দ্বারা কমিয়ে আনা যায়। তাছাড়া, গ্রাফিন লেন্স এর আর্দ্রতা ধারণকারী বৈশিষ্ট্য পর্যবেক্ষণ করা হয় লেন্স ধারণকারী শিশি থেকে পানির পরিমানের পরিবর্তনের হার লক্ষ্য করে, যার মাধ্যমে বোঝা যায় যে গ্রাফিন আবরিত লেন্স চোখকে শুকিয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করবে। চোখকে ক্ষতিকর তরঙ্গ থেকে বাঁচানোর পাশাপাশি এই লেন্স ক্যাটারাক্ট হওয়া থেকেও চোখকে রক্ষা করতে পারবে। গ্রাফিন প্রলিপ্ত লেন্স অদূর ভবিষ্যতে পরিধেয় প্রযুক্তির জন্য বায়োনিক প্ল্যাটফর্মে একটি বড় পরিবর্তন আনতে পারবে।

 

মেহরীন খায়ের, কেমিস্ট্রি, ঢাবি

Comments

comments