জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ | Dhakatimes24

ইন্দোনেশিয়ায় অনুষ্ঠেয় ১৩তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে যোগ দেবে বাংলাদেশের ছয়জন খুদে বিজ্ঞানী। বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে লাল-সবুজের পতাকা নিয়ে বিজ্ঞানের এই মহাযজ্ঞে যাবে সারা দেশ থেকে বাছাই করা ছয়জন কৃতী শিক্ষার্থী।

সায়েন্স অলিম্পিয়াডে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা হলেন-ফারদিম মুনির (স্যার জন উইলসন স্কুল অ্যান্ড কলেজ), তাহমিদ মোসাদ্দেক (নটরডেম কলেজ), এ কে এম সাদমান মাহমুদ আবির (পাবনা জিলা স্কুল), নিহাল জুহায়ের পরশ মিয়াজী (কুমিল্লা জিলা স্কুল), আহমেদ নাফিস ফারহান (নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়) ও মিরাজ আহমেদ সাদি (বিএফ শাহীন ইংলিশ স্কুল )।

এই ছয় প্রতিযোগীর দলনেতা হিসেবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. ফারসীম মান্নান মোহাম্মাদী, বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সহকারী একাডেমিক কো অর্ডিনেটর মো. জুনায়িদুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশনের প্রজেক্ট অফিসার মো. মোরশেদ আলম।

২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে ১৩তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড ২০১৬। বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতি ও বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে খুদে এ বিজ্ঞানযোদ্ধাদের সবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে আজ গতকাল মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর একটিসংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও ইউনিভার্সিটি অফ এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী খুদে শিক্ষার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন ও জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট বিজ্ঞানী ড. রেজাউর রহমান, আল–আরাফা ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান, উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী তৌহিদুল আলম, বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী ও কোষাধ্যক্ষ বায়েজিদ ভূইয়া জুয়েলসহ অনেকে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতি ও বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন যৌথভাবে ২৭ আগস্ট বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আয়োজন করে। পরে বিজয়ীদের মধ্য থেকে ক্যাম্পের মাধ্যমে ৬ জন খুদে বিজ্ঞানযোদ্ধাকে নির্বাচিত করা হয়।

published on Dhakatimes24.net

Comments

comments