পর্যায় সারণিতে নতুন চারটি মৌলের স্থায়ী নাম

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ পিওর অ্যান্ড অ্যাপ্লায়েড কেমিস্ট্রি (IUPAC) পর্যায় সারণির ১১৩, ১১৫, ১১৭ এবং ১১৮ নং মৌলের আবিষ্কারের ব্যাপারটাকে নিশ্চিত করেছিল গত বছরের ডিসেম্বরে। এই মৌলগুলির অস্থায়ী নাম দেয়া হয়েছিল ইউনানট্রিয়াম (১১৩), ইউনানপেন্টিয়াম (১১৫), ইউনানসেপ্টিয়াম (১১৫), ইউনানঅক্টিয়াম (১১৮)। IUPAC মৌলগুলির আবিষ্কারকদের কাছ থেকে মৌলগুলির স্থায়ী নাম আহবান করেছিল। তাঁরা মৌলগুলির জন্য নাম জমা দিয়েছেন, এবং IUPAC এর অজৈব রসায়ন বিভাগ সেই নামগুলি রিভিউ করে গ্রহণ করার জন্য অনুমোদন করেছে। এবছরের ৮ জুন থেকে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত ৫ মাস নামগুলি পাবলিক রিভিউয়ের জন্য রাখা হয়েছে। তারপর IUPAC কাউন্সিল নামগুলিকে চূড়ান্তভাবে অনুমোদন করবে।

মৌলগুলির নতুন নাম হচ্ছে নিহোনিয়াম (১১৩, সংকেত Nh), মস্কোভিয়াম (১১৫, সংকেত Mc), টিনেসিন (১১৭, সংকেত Ts) এবং ওগানেসন (১১৮, Og)।

১১৩ নং মৌলটি আবিষ্কার করেছিলেন জাপানের রিকেন নিশিনা সেন্টার ফর অ্যাক্সিলারেটর বেইজড ফিজিক্সের বিজ্ঞানীরা। তাঁরাই নিহোনিয়াম নামটি প্রস্তাব করেছেন। জাপানিজ ভাষায় “জাপান” বলার দুটো উপায়ের একটা হচ্ছে “নিহোন”। এর অর্থ হচ্ছে উদীয়মান সূর্যের দেশ। ১১৩ নং মৌলটি হচ্ছে কোন এশিয়ান দেশে আবিষ্কার হওয়া প্রথম মৌল।

১১৫ নং মৌলটির নাম মস্কোভিয়াম দেয়া হচ্ছে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর নামানুসারে। ১১৭ নং মৌলটির নাম টিনেসিন দেয়া হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টিনেসি অঙ্গরাজ্যের নামানুসারে। রাশিয়ার দুবনার জয়েন্ট ইনস্টিটিউট ফর নিউক্লিয়ার রিসার্চ, আমেরিকার টিনেসির ওক রিজ ন্যাশনাল ল্যাবরেটরি ও ভ্যানডারবিল্ট বিশ্ববিদ্যালয় এবং ক্যালিফোর্নিয়ার লরেন্স লিভারমোর ন্যাসনাল ল্যাবরেটরির বিজ্ঞানীরা যৌথভাবে নামগুলি প্রস্তাব করেছেন। তাঁরা মৌল দুটি আবিষ্কারের গবেষণার কাজে যুক্ত ছিলেন।

১১৮ নং মৌলটির নামও প্রস্তাব করেছেন রাশিয়ার জয়েন্ট ইনস্টিটিউট ফর নিউক্লিয়ার রিসার্চ, আমেরিকার লরেন্স লিভারমোর ন্যাশনাল ল্যাবরেটরির বিজ্ঞানীরা। রাশিয়ান নিউক্লিয়ার পদার্থবিজ্ঞানী ইউরি ওগানেসিয়ান এর নামানুসারে মৌলটির নাম প্রস্তাব করা হয়। ইউরি ওগানেসিয়ান এবং তাঁর দল পর্যায় সারণির ভারী মৌলগুলি আবিষ্কারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

IUPAC এর নিয়ম অনুযায়ী, কোন পৌরাণিক চরিত্র বা ঘটনা, খনিজ পদার্থ, কোন ভৌগলিক জায়গা, মৌলের কোন ধর্ম কিংবা কোন বিজ্ঞানীর নাম অনুসারে কোন নতুন মৌলের নামকরণ করা যায়। গ্রুপ ১-১৬ এর মৌলের নামের শেষে “-ium”, গ্রুপ ১৭ এর মৌলের নামের শেষে “-ine” এবং গ্রুপ ১৮ এর মৌলের নামের শেষে “-on” থাকে। পাশাপাশি নামগুলি এমন হতে হয়, যাতে পৃথিবীর প্রধান ভাষাগুলিতে সহজে অনুবাদ করা যায়।

নতুন চারটি মৌলের নামকরণ নিয়ে পাবলিক রিভিউ শেষ হলে IUPAC এর জার্নাল Pure and Applied Chemistry তে চূড়ান্তভাবে নামগুলি প্রকাশিত হবে।

Written by: Shibly-Bin_sarwar

Comments

comments